Thu. Feb 22nd, 2024
    WhatsApp Group Join Now
    Telegram Group Join Now

    বর্তমানে নানা রোগে অসুস্থ হয়ে পড়ছেন অনেকেই। বর্তমানে আমরা যতই সময়ের সাথে তাল মিলয়ে চলছি,ততই প্রকৃতি কে আমরা দূরে ফেলে রাখছি। আর এই প্রকৃতি কে দূরে রাখছি বলেই আজ আমরা নানা রোগ এ আক্রান্ত হচ্ছি। কারন আমরাও প্রকৃতির দান, তাই আমাদের সবসময় মনে রাখতে হবে যে প্রকৃতির নিয়ম আছে সেই নিয়ম মেনে চলতে হবে। তা হলেই আমরাও সুস্থ থাকবো ভালো থাকবো।

    আজকে আমরা এমন একটা গাছের পরিচয় দিতে চলেছে এই পোস্টার মাধ্যমে, যা আপনার বিপদের বন্ধু হতে পারে। এই গাছের দ্বারা বহু বড় বড় রোগ নির্মূল করা যেতে পারে। যেখানে বিজ্ঞান ও ফেল হয়ে যায়, কিন্তু আমাদের প্রকৃতির দান গাছ কখন মানুষের সাথে বেঈমান করে না। তাই বিস্তারিত জানতে পুরো পোস্টটি পড়ুন।

    বন্ধুরা এই গাছের অনেক প্রমাণ রয়েছে, যে কিনা কিডনি স্টোন থেকে শুরু করে, আরো অনেক বড় বড় রোগ নির্মূল করে থাকে। এই গাছের নাম থানকুনি। নিয়ম মত প্রতিদিন খেলে, শরীরের নানান রোগ থেকে আমাদের বাঁচায়। আজকের এই পোষ্টের মাধ্যমে  এই গাছের কিছু গুরুত্বপূর্ণ কাজ জানবো –

    আরো পড়তে এখানে ক্লিক করুন 👈

    ১/ মূত্রনালী সংক্রমণ থেকে দ্রুত মুক্তি দিয়ে থাকে এ গাছের পাতার রস। প্রতিদিন সকালে খালি পেটে এই গেছে রস পান করলে উপকার পাওয়া যায়।

    ২/ হজমের যদি সমস্যা হয়ে থাকে আপনার, তাহলে এই গাছের পাতা সিদ্ধ করে, অল্প একটু নুন মিশিয়ে প্রতিদিন পান করুন। সমস্যা কিছুদিনের মধ্যেই দূর হয়ে যাবে।

    ৩/ আপনি যদি কোষ্ঠকাঠিন্য তো ভুগছেন, তাহলে আপনার জন্য এই পাতা মহা ঔষধি  হিসেবে কাজ করতে পারেন। কোনরূপ সাইড ইফেক্ট ছাড়াই। প্রতিদিন খাবার চেষ্টা করুন এই পাতা।

    ৪/ শরীরের ইমিউনিটি  পাওয়ার বাড়াতে এই গাছের বিশেষ ভূমিকা আছে। পারলে প্রতিদিন মধুর সাথে এই গাছের পাতার রস মিশিয়ে পান করার চেষ্টা করুন।

    ৫/ পিত্তথলি বা কিডনি স্টোন এই সমস্যা যদি ভুগতে থাকেন, তাহলে এই গাছের রস  প্রত্যহ সকালে খালি পেটে পান করার চেষ্টা করুন।

    সতর্কতা : স্বাস্থ্যের জন্য যেকোন প্রোডাক্ট বা আয়ুর্বেদিক, কোন ওষুধ ব্যবহার করেন, তার আগে অবশ্যই চিকিৎসক পরামর্শ নেবেন তারপরে ব্যবহার করবেন।

    এই ধরনের আরো পোস্ট পেতে অবশ্যই আমাদের হোয়াটসঅ্যাপ গ্রুপে জয়েন হতে পারেন।

    হোয়াটস্যাপ লিঙ্ক 👉জয়েন 

    Leave a Reply

    Your email address will not be published. Required fields are marked *