Sun. Mar 3rd, 2024
    WhatsApp Group Join Now
    Telegram Group Join Now

    ধন সম্পদের দেবী মা লক্ষ্মী,আশ্বিন মাসের শেষ পূর্ণিমাতে কোজাগরী লক্ষ্মী পুজো করা হয়ে থাকে। হিন্দুদের শাস্ত্র মতে এই দিনে মা লক্ষ্মী তার ভক্ত দের সাথে দেখা করে তাঁদের মনোস্কামনা পূর্ণ করার জন্যে স্বর্গ থেকে মর্ত্যএ আসেন। কোজাগরী পূর্ণিমার রাতে মা লক্ষ্মী তার ভক্তদের বাড়ি বাড়ি যায় এবং ওই রাতে যদি কোনো ভক্ত যথা রীতি নিয়ম মেনে তার পুজো করেন তবে তার মনের ইচ্ছে পূরণ করে থাকে।

    তাকে প্রচুর ধন দৌলতের মালিক বানিয়ে দেন। তবে এই পুজো সঠিক নিয়ম ও পবিত্র মনে করতে হবে। যদি আপনার মনে কোনো শান্তি না থাকে তবে আপনার পুজো মা লক্ষী সন্তুষ্ট না হয়ে ক্ষিপ্ত হতে পরেন। আজকের এই ছোট্ট বিনোদন এর মধ্যে জানবো কি ভাবে পুজো করলে মা সন্তুষ্ট হবেন। আর আপনি যদি বাড়িতেই ব্রাহ্মন ছাড়া পুজো করেন তা হলে কি কি পুজোর উপকরণ লাগবে।

    ব্রাহ্মণ ছাড়া ঘরোয়া লক্ষ্মী পূজায় যে সব উপকরণ লাগে

    ▪️সিঁদুর,তিল, হরতকি, ঘট, অধিবাসডালা,আতপ চাউল, এক সরা,ডাব অবশ্যই শিক জেনো থাকে, শালু বা গামছা,দূর্বা ঘাস,পঞ্চ গুঁড়ি, পঞ্চ গব্য, পঞ্চ রত্ন,আয়না, পায়না, শাখা,তেকাটা ১,ফুল,কুন্ড হাঁড়ি ১, ভোগ, তীর ৪ টি,ধুনা ধুপ ও প্রদীপ,দুধ, ঘৃত, মধু,গঙ্গা জল, কপুর,দেবীর মূর্তি, ফুলের মালা ইত্যাদি।

    👉মা লক্ষ্মী পূজার শুভ সময় ও জপ মন্ত্র দেখতে এখানে ক্লিক করুন 👈

    আপনি যদি ব্রাহ্মণ দিয়ে মায়ের পুজো করাতে চাইছেন তা হলে ব্রাহ্মণ এর কাছে গিয়ে পুজোর পুরো সরঞ্জাম এর লিস্ট পেয়ে যাবেন। নিজেই যদি ঘরোয়া উপায়ে পুজো করতে চাইছেন তা হলে উপরের উপকরণ এই যথেষ্ট।

    ঘরোয়া নিয়মে কি ভাবে করবেন পুজো

    ▪️ঘরোয়া পদ্ধতিতে মা লক্ষ্মীর পুজো করলে তেমন কিছুই করতে হয় না, ব্রাহ্মণ দিয়ে পুজো করলে অনেক খরচ ও অনেক নিয়ম পালন করতে হবে। মনের মধ্যে ভক্তি ও শ্রদ্ধার সাথে মাকে ডাকলে মা আল্পতেই খুশি হন ও বর প্রদান করে থাকেন।

    পুজোর নিয়ম

    ▪️পুজো করার আগে অবশ্যই পুরো বাড়ি পরিষ্কার করে ধুয়ে ফেলবেন। তার পরে বাড়ির প্রবেশ দ্বার থেকে বাড়ির ভিতর পর্যন্ত আল্পনা দিয়ে সাজিয়ে দেবেন। এর পরে সঠিক টাইমে ঘট বসিয়ে ধুপ ধুনা দিয়ে মা লক্ষ্মীর প্রণাম মন্ত্র দিয়ে প্রণাম করে পুজো শুরু করবেন। যে ভাবে আপনি অন্যান্য পূর্ণিমাতে লক্ষ্মী পুজো করে থাকেন ঠিক সেই ভাবেই পুজো করুন। ভক্তি ও শ্রদ্ধার সাথে মায়ের ধ্যান করুন মা খুশী হয়ে আপনার পুজোয় সন্তুষ্ট হবেন।

    সতর্কতা: আপনি যতই ভক্তি দিয়ে পুজো করুন না কেনো, পুজোর শেষ যখন হবে অবশ্যই নিজের কান ধরে একটা কথা বলবেন – “মা পুজোর মধ্যে যদি অজান্তে কোনো ভুল হয়েছে তা হলে ক্ষমা করে দিও”। কাজ করলে ভুল হতেই পারে তাই এই কথা মাথায় রাখবেন।

    আরো এই ধরনের পোস্ট পড়তে হলে আমাদের হোয়াটস্যাপ ও টেলিগ্রাম গ্রূপে জয়েন হয়ে যান নীচে লিঙ্ক দেওয়া আছে।

    হোয়াটস্যাপ লিঙ্ক 👉জয়েন

    টেলিগ্রাম লিঙ্ক 👉জয়েন 

    Leave a Reply

    Your email address will not be published. Required fields are marked *