Thu. Feb 22nd, 2024
    WhatsApp Group Join Now
    Telegram Group Join Now

     

    লক্ষণ : সাধারণত যৌবন শুরুতে মুখে, কপালে, নাকে প্রভৃতি স্থানে ফুসকুড়ি বা ছোট ফোঁড়া জন্মে। ইহা পেকে উঠে। টিপে দিলে ভাতের মত ভাতুরী বের হয়। পরে কালো দাগ থেকে যায়। মুখ লাল বর্ণ হয়ে ফুলে উঠে। চামড়া মোটা হয়ে যায়। প্রচন্ড ব্যাথা ও যন্ত্রণা হয়। acne star acne star cream.

    কারণঃ বিভিন্ন কারণে এই জাতীয় ব্রণ হয়ে থাকে। যৌবন শুরুতে হর্মোনের প্রভাবে ইহা বেশি দেখা যায়, জন্মগত কারণে বংশের ধারা অনুসারে, কোষ্ঠকাঠিন্য থাকলে,পায়খানা পরিষ্কার না হলে, অতিরিক্ত হস্তমৈথুনের ফলে, বেশি মশলাযুক্ত খাবারের অভ্যাস থাকলে, পরিবেশগত অস্বাস্থ্যকর-আলো বাতাস হীন ঘরে বসবাসের ফলে বা অতিরিক্ত ঠাণ্ডা গরম লাগলে সর্বপরি অতিরিক্ত কসমেটিকের ব্যবহারে এই রোগ দেখা দেয়। acne face wash.

    আরো পোস্ট পড়তে এখানে ক্লিক করুন 

    ঘরোয়া টোটকা বা চিকিৎসাঃ

    ব্রণ থেকে মুক্তি পেতে নিয়মিত গরম জলের ভাপ নেওয়া অভ্যাস করুন। একটা পাত্রে গরম জল নিয়ে চোখ বন্ধ করে ২-৩ মিনিট ভাপ নিন।

    ● কমলালেবুর খোসা রোদে শুকিয়ে মিহি করে ব্যাসন বা মুলতানি মাটির সঙ্গে পেস্ট করে ব্রণতে লাগানো। আধঘণ্টা পর হাল্কা গরম জলে মুখ ধুয়ে নেওয়া। কিছুদিন করলেই ব্রণ দূর হবে।

    ● রসুনের কোয়া বেটে প্রতিদিন ব্রণর উপর ঘষলে রণ মিলিয়ে যায়।

    ● শিমূল কাঁটা দুধের সঙ্গে বেটে প্রতিদিন ব্রণতে সকাল সন্ধ্যায় লাগালে ব্রণ সেরে যাবে।

    ●আকন্দপাতা থেঁতো করে ব্রণতে হালকা করে প্রলেপ দিলে ব্রণ ফেটে গিয়ে নিরাময় হয়।

    ●ব্রণ খুঁটে ফেললে বা ফেটে দাগ হলে ছাতিমের আঠা লাগালে সেরে যাবে।

    সাবধানতা অবলম্বন ও পথ্য : উত্তেজনার কারণ থেকে দূরে থাকা উচিত। যৌন উত্তেজনামূলক গল্প, ছবি দেখা ত্যাগ করা উচিত এবং নিজেকে সর্বদা পরিষ্কার রাখা, কোষ্ঠ পরিষ্কার থাকে সেইরূপ খাদ্য গ্রহণ, শাক-সবজী, ফল ও দুধ বেশি করে খেতে হবে। আজেবাজে কোন কসমেটিক ব্যবহার না করা, অল্প গরম জলে ভালো করে স্নান করা,খোলা হাওয়াতে বেড়ানো এই রোগের পক্ষে উপকারী।

    আমাদের এই পোস্ট গুলি যদি আপনার ভালো বা আপনি যদি পড়ে উপকৃত হন তবে শেয়ার করে অন্যান্য বন্ধু দের দেখার সুযোগ করে দিবেন।

    তাড়াতাড়ি আমাদের পোস্ট পড়তে টেলিগ্রাম ও ফেবুকে জয়েন হতে পরেন, নীচে লিঙ্ক দেওয়া আছে।

    টেলিগ্রাম লিঙ্ক 👉জয়েন হোন 
    ফেসবুক লিঙ্ক 👉ফলো করুন