Thu. Feb 22nd, 2024

    WhatsApp Group Join Now
    Telegram Group Join Now

    প্রত্যেক নারী এই চায় আমি যাকে বিয়ে করবো তার জীবনের সর্বশেষ নারী হবো আমি।

     

    যেহেতু মেয়েদের মন বাচ্চার জন্যে খুবই জাগ্রত। মেয়েরা বুঝতে পারে যে অন্য পুরুষ তার বাচ্চাকে নিজের বাচ্চার মতো আদর করবে না। কেন না অন্য পুরুষ তার বাচ্চার সাথে সেলফিশ জিন শেয়ার করে না,এক কথায় রক্তের সম্পর্ক নেই। ফলে মেয়েরা  বুঝে শুনে বিয়ে করতে চায়। যার সাথে সারা জীবন থাকতে পারবে এমন এক বিষস্ত মানুষ । আর এটা শুধুই বাচ্চার স্বার্থে।

     

    তাই তো দেখা যায় সারাবছর তার স্বামী পতিতালয়ে দৌড়ালেও বা অন্য মেয়ের সাথে অবৈধ সম্পর্ক চালিয়ে গেলেও মেয়েরা তার সংসার ছেড়ে চলে যেতে চায় না। ফলে দেখা যায় নতুন প্রেমিক যতই কামুক হোক না কেন মেয়েদের কাছে উক্ত নতুন থেকে উত্তম তার পুরাতন স্বামী যে একটা লুইচ্ছা বদমাশ ও বাচ্চার পিতা। এটাই মাতৃত্বের বিসর্জন। মাতৃত্বের বিসর্জনে বাঁচে জীবন।

     

    আসক্তঃ

     

    বিবাহিত মেয়েরা হয়তো চাইবে না যে স্বামী ছাড়া কেউ তার প্রতি আসক্ত হোক। কেননা এতে সে বেকায়দায় পড়বে।

     

    খুব সুন্দরী উচ্চশিক্ষিত একজন মেয়ে সে আপনাকে অপছন্দ করে তা নয়। সে আপনার শত্রুও নয়। তবে আপনি তার যোগ্য নন “ব্যটল অব সেক্সের” কারনে। আপনার চেয়ে অনেক সুদর্শন ও ভালো বেতন পায় অনেক ছেলেই আপনার প্রতিদ্বন্দ্বী।

     

    তাই তো ব্যটল অব সেক্স ব্যপারটিকে মাথায় রেখে আঙুর ফল টক এটা বলে মনকে সান্ত্বনা দেন। যে ব্যটল অব সেক্স বুঝে সেই বাস্তব জীবন বুঝে। জীবন মানেই হচ্ছে লড়াই।

     

    আকৃষ্টঃ

     

    ছেলেদের আকৃষ্ট করা মেয়েদের বিবর্তনীয় কৌশল। মেয়েরা সেজেগুজে নিজেদের আকর্ষনীয় করবে। তবে সবসময় যে মেয়েরা সচেতনভাবে ছেলে আকৃষ্ট করার জন্যে সাজবে তা নয়। তবে এটা তাদের একটা অস্ত্র। বিবাহিত মেয়েরা অস্ত্র দিয়ে শিকার ধরে না বটে তবে সামরিক মহড়া দেয়। নিজেদের আত্মবিশ্বাস বাড়ায়। যেহেতু অন্য ছেলেরা আমার প্রতি আকৃষ্ট হচ্ছে তাহলে আমার স্বামীও আমাকে ভালোবাসবে। কিংবা আমার যৌবন এখনও শেষ হয়ে যায় নাই। এগুলি ভেবেই সে তৃপ্ত পায়।

     

    বিবাহিত মেয়েরা অন্য ছেলের প্রতি আকৃষ্ট হয়। কিন্তু আসক্ত হয় নাঃ

    বিবাহিত মেয়েরা কি চায় তার প্রতি, তার স্বামী ছাড়া অন্য কেউ আকৃষ্ট হোক?

     

     

    বিবাহিত মেয়েদের স্বামী আসক্তির কারন বাচ্চার জিনপুল। মেয়েদের সবকিছু বাচ্চাকে নিয়ে।

     

    মেয়েরাও বহুগামী। বিবাহিত মেয়েরা অন্য ছেলের প্রতি আকৃষ্ট হয়। কিন্তু আসক্ত হয় না। কারন বাচ্চার জিনপুলে অন্য ছেলের অস্তিত্ব নেই। তাদের টেনশন নতুন প্রেমিক বাচ্চাকে এতোটা আদর করবে না। যেভাবে বাচ্চার বাবা করে।

     

    স্বামী অন্য মেয়ের সাথে পরকীয়ায় জড়ালে স্ত্রী অন্য ছেলের সাথের সাথে পরকীয়ায় জড়ালেই পারে। তাছাড়া একটি মেয়ের জন্যে পতিতা হওয়া বা পরকীয়া করা বা অন্য ছেলে বশ করা এতো কঠিন নয়। তবু কেন মেয়েরা স্বামী আসক্ত হয়ে আত্মহুতি দেয়?

     

    উত্তরঃ নতুন প্রেমিক তো তার বাচ্চাকে নিজের সন্তান কখন ই ভাববে না। নারীদের সেক্স ও যৌনতায় বাচ্চা জড়িত থাকে । বিবর্তন এভাবেই হয়েছে।

     

    নারীদের বিবর্তন হয়েছে স্বামীর প্রতি আসক্ত হয়েই। তাই শত নির্যাতনেও মেয়েরা স্বামীর ঘর ছাড়তে চায় না। মেয়েরা যা করে বাচ্চার মঙ্গলের জন্যে করে। তাই মেয়েরা যে করেই হোক সংসার টিকিয়ে রাখতে চায়। আর দাম্পত্য কলহ তো আছেই। এর মাঝেই জিনপুলকে সমৃদ্ধ করার চেষ্টা। এটাই বিবর্তন।

    Leave a Reply

    Your email address will not be published. Required fields are marked *